শীর্ষ সংবাদ

নগরীর ১২টি স্পটে চসিকর করোনা পরীক্ষা বুথ স্থাপন শুরু

চট্টগ্রাম নগরীতে প্রতিনিয়তই বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনার প্রাদুর্ভাব। সেই সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে রোগীর সংখ্যা। যতবেশি নমুনা পরীক্ষা তত বেশি রোগী শনাক্ত সম্ভব এমনটাই মত দিচ্ছেন স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা। করোনা সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতিতে নগরবাসীকে সাহস হারা না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে নগরীতে  করোনা রোগীদের সেবা সহজলভ্য করা জন্য  প্রতিনিয়তই মতামত ও পরামর্শ নিচ্ছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।  এরই ধারাবাহিকতায় আজ বুধবার সিটি মেয়রের উদ্যোগে ব্র্যাক বাংলাদেশ’র সহায়তায় নগরীর ১২টি স্পটে করোনা পরীক্ষা বুথ স্থাপন শুরু হয়েছে। আগামী এক-দুই দিনের মধ্যে  নগরীর কাট্টলী মোস্তফা হাকিম মাতৃসদন হাসপাতাল, আন্দরকিল্লা চসিক পুরাতন নগর ভবন, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব, মেমন টু হাসপাতাল, অক্সিজেন আবদুর রহিম দাতব্য চিকিৎসালয় ও বন্দরটিলা মাতৃসদন হাসপাতালসহ আরো ছয়টি বুথ স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন সিটি মেয়র। যার ফলে করোনা সংক্রমণ উপসর্গে ভুক্তভুগীরা সহজতরভাবে নমুনা পরীক্ষা করাতে পারবেন। করোনা সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতিতে নগরবাসীকে সাহস হারা না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে সিটি মেয়র বলেন, করোনা ভাইরাস অবশ্যই দূরারোগ্য ভাইরাস। তবে সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ ও সচেতনায় এটি মোকাবেলা করা সম্ভব। আমাদের দেশে তুলনামূলক সুস্থ হওয়ার হার বেশি। আশা করা যাচ্ছে পরিস্থিতি অতি সহসায় সহনিয় পর্যায়ে আসবে। সেজন্য দরকার সচেতনতা ও সঠিক জীবন যাপন। SHARE1

কাউন্সিলর মাজহার ও এটলির মৃত্যুতে নগর আওয়ামী লীগের শোক

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর পূর্ব মাদারবাড়ি ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল হক এটলির মৃত্যুতে মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন শোক প্রকাশ করেন । মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন শোক বিবৃতিতে বলেন, মহান আল্লাহপাক যেন তাদের জান্নাতুল ফেরদৌস দান করেন এবং পরিবারকে এই শোক সহ্য করার শক্তি দান করেন। কাউন্সিলর মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী সদরঘাট থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম চেম্বারের সাবেক পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালনের কথা স্মরণ করেন বিবৃতিদাতারা। পাশাপাশি মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল হক এটলির কর্মময় জীবনের কথাও স্মরণ করেন তারা।

চলমান করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে -৩১ মে থেকেই অফিস খোলা

চলমান মহামারি করোনা পরিস্থিতিতে সাধারণ ছুটি আর বাড়ছে না। আগামী ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিস-আদালতে কাজ করতে হবে। তবে বয়স্ক এবং গর্ভবতী নারীরা এর আওতামুক্ত থাকবেন। আজ বুধবার বিকেলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন সাংবাদিকদের এমন তথ্যই জানান।  তিনি বলেন, এ সময়ে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিস-আদালতে কাজ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তবে বয়স্ক এবং গর্ভবতী নারীদের অফিসে আসতে হবে না। সেইসঙ্গে গণপরিবহনও চলবেনা। স্কুল, কলেজ ১৫ জুন পর্যন্ত আপাতত বন্ধ থাকবে। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজে যোগ দেয়ার জন্য আসতে হবে উল্লেখ করে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, ইতোমধ্যেই নির্দেশনায় প্রধানমন্ত্রীর সাইন হয়েছে। কাল বৃহস্পতিবার সকালে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। গত ২৬ মার্চ থেকে সাত দফা ছুটি বাড়ানোর পর সর্বশেষ সাধারণ ছুটি ৩০ মে পর্যন্ত ঘোষণা করা আছে। এবার ঈদের মধ্যেই পড়েছে টানা ৬৭ দিনের এই ছুটি। সোমবার ঈদ উদযাপন ও পরে সপ্তাহিক ছুটি শেষে আগের ঘোষণা অনুযায়ী ৩১ মে রোববার থেকেই অফিস খোলা থাকার কথা ছিল। এদিকে, মহামারি আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে মোট ৫৪৪ জন মারা গেলেন করোনায়। একই সময়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরও এক হাজার ৫৪১ জন। ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ৩৮ হাজার ২৯২ জনে। আজ (২৬ মে) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। বুলেটিন পড়েন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। বুলেটিনে বলা হয়, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় সাত হাজার ৮৪৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় আগের কিছু মিলিয়ে আট হাজার ১৫টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো দুই লাখ ৬৬ হাজার ৪৫৬টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে আরও এক হাজার ৫৪১ জনের দেহে। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ২২ শতাংশ। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮ হাজার ২৯২ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ২২ জন। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৫৪৪ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ৩৪৬ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল সাত হাজার ৯২৫ জনে। ডা. নাসিমা করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাইকে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ-নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানান বুলেটিনে। বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল পর্যন্ত বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনার শিকার হয়েছেন ৫৬ লাখ ৭৮ হাজার ১৪৬ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৯৩ হাজার ৮৭৯ জন। নতুন করে প্রাণ গেছে ৪ হাজার ৪১ জনের। এ নিয়ে করোনারাঘাতে পৃথিবী থেকে গত হয়েছেন বিশ্বের ৩ লাখ ৫১ হাজার ৬৫৪ জন মানুষ। প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। দেশে প্রথম কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হন ৮ মার্চ এবং এ রোগে আক্রান্ত প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

করোনার জেরে অন্য রোগীরা চিকিৎসা পেতেও নানা ধরনের বিড়ম্বনার শিকার

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার জেরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই লকডাউন চলছে। করোনা সংক্রমণ থামাতে মাস্ক ব্যবহার, জীবাণুনাশক প্রয়োগ ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু করোনার জেরে বিভিন্ন দেশে রোগীরা পড়ছেন নানা ধরনের বিড়ম্বনায়। বিশেষ করে করোনা আক্রান্ত না হয়েও অন্য রোগীরা বর্তমানে চিকিৎসা পেতে হেনস্থার শিকার হচ্ছেন। অনেকেই বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছেন। জানা গেছে, আগের তুলনায় যুক্তরাজ্যে রোগী মৃত্যুর হার বেড়ে গেছে। এক সপ্তাহে প্রায় দুই হাজারের বেশি রোগী মারা গেছে সে দেশে। গত ১৫ মে পর্যন্ত হাসপাতালে মারা যাওয়া রোগীদের মধ্যে ৮৯ শতাংশ করোনা আক্রান্ত নয়। করোনা মহামারির মধ্যে যুক্তরাজ্যের হাসপাতালে ৫৪ হাজার ৩২ জন রোগী মারা গেছে। তার মধ্যে ১২ হাজার নয়শ ৩২ জন করোনা আক্রান্ত নয় বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, করোনার জেরে অন্য রোগীরা আর সেভাবে চিকিৎসা পাচ্ছেন না। সে কারণে মারা পড়ছেন। এমনকি করোনা আক্রান্তরাও চিকিৎসায় গাফিলতির কারণে মারা যাচ্ছেন।  কেউ অসুস্থ হলে হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা পেতেও নানা ধরনের বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। সূত্র : কনজারভেটিভ ওমেন

৩০ টাকার সেই ওষুধেই দ্রুত সুস্থ হচ্ছে করোনা রোগী!

রাশিদা হক কনিকা ডেক্সঃ #ইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন ব্যবহারে করোনা মুক্তির হার বেড়েছে কয়েক গুণ। রাজধানীর কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে দেড় হাজার আক্রান্ত রোগীর ওপর এই ওষুধ ব্যবহার করে এমন দাবি করছেন চিকিৎসকরা। তবে বিশেষজ্ঞরা এর ব্যবহারকে স্বাগত জানালেও গুরুত্ব দিচ্ছেন গবেষণায়। স্বাস্থ্য বিভাগও বলছে, বিষয়টি নিয়ে কাজ করছেন তারা। #করোনায় ফ্রন্ট লাইন যোদ্ধাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত পুলিশ। সংখ্যাটা দুই হাজারের বেশি। প্রথমদিকে প্রতিদিন গড়ে ২০ থেকে ৩০ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তবে গত চার-পাঁচদিনে সেই সংখ্যা প্রতিদিন প্রায় এক’শ। যা আগের থেকে প্রায় পাঁচ গুন। #হাসাপাতালের চিকিৎসকদের দাবি, ইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন ব্যবহারের ফলেই বাড়ছে সেরে ওঠা রোগীর সংখ্যা। রোগী শনাক্তের প্রথম দিনেই দেয়া হচ্ছে দুটি ইভারমেকটিন আর ডক্সিসাইক্লিন দেয়া হচ্ছে সাত দিনে সাতটি। তাতেই মিলছে সুফল। #কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসক পুলিশ সুপার মো. এমদাদুল হক বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করছি কয়েকদিন ধরে রোগী সেরে উঠছে প্রতিদিন প্রায় ১০০ করে। দুটি ইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন ১০০ মিলিগ্রাম এই ওষুধে সুফল মিলছে।এমন জরুরি সময়ে এসব ওষুধ ব্যবহারে নিষেধ নেই বিশেষজ্ঞদের। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে বিস্তর গবেষণার তাগিদ তাদের। বাংলাদেশ ফার্মাকোলজিক্যাল সোসাইটি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সায়েদুর রহমান বলেন, এ ওষুধ দিয়ে ভালো ফলাফল পাওয়া যাচ্ছে এ ধরনের প্রচারণা বিভ্রান্তি সৃষ্টি করবে। তাই গবেষণা করা ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করা প্রয়োজন। #স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলছেন, বিষয়টি আমলে নিয়ে কাজ করছেন তারা।প্রায় দেড়মাস বেশ কয়েকজন রোগীর ওপর গবেষণা শেষে দেশে এই ওষুধ দুটি ব্যবহারের সুফল তুলে ধরেন বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. তারেক আলম। সূত্র: সময়টিভি।

নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

আজ মঙ্গলবার (২৬ মে)ঢাকার সানবিমস স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সৈয়দ মঞ্জুর এলাহীর স্ত্রী নিলুফার মঞ্জুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, অধ্যক্ষ নিলুফার মঞ্জুর এ দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার অগ্রগতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। দেশ ও জাতি তাঁর এই অবদানের কথা মনে রাখবে।প্রধানমন্ত্রী মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে   রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রাজধানীর সানবিমস স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ নিলুফার মঞ্জুর। নিলুফার মঞ্জুর দেশের অন্যতম শীর্ষ ব্যবসায়ী সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার লিমিটেডের চেয়ারম্যান সৈয়দ মঞ্জুর এলাহীর স্ত্রী। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি ছেলে সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর, মেয়ে মুনিজ-এ-মঞ্জুর, পুত্রবধূ ড. সামিয়া হক, নাতি-নাতনি, বোন ইয়াসমিন হক, ভাই জামশেদ চৌধুরী, বন্ধু-বান্ধব, অগণিত গুণগ্রাহী এবং অসংখ্য শিক্ষার্থীকে রেখে গেছেন।  ১৯৭৪ সালে ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সানবিমস স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন নিলুফার মঞ্জুর। মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি স্কুলটির অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। সোশ্যাল মার্কেটিং কোম্পানির সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন তিনি। তাঁর বাবা মফিজ আলী চৌধুরী ১৯৭২ সালের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। 

ঈদের দিনেও বিদ্বেষের রাজনীতি থেকে বিএনপি বের হতে পারেনি: তথ্যমন্ত্রী

আজ  মঙ্গলবার (২৬ মে) পবিত্র ঈদের দিনেও বিষোদগারের রাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি বিএনপি বলে জানানআওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ।আজ  রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি- (ডিআরইউ)-এর রজতজয়ন্তী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বিএনপির সাম্প্রতিক মন্তব্য প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আজকের এই বৈশ্বিক মহামারি শুধু বাংলাদেশে নয়, এর কারণে উন্নত দেশগুলো আজ নাস্তানাবুদ পরিস্থিতির শিকার। সেখানে মৃত্যু ঠেকানো যাচ্ছে না। বেলজিয়ামের মতো দেশে মৃত্যুর হার ১৫ শতাংশ। ব্রিটেনে ১৪, আমেরিকায় ৬, ভারতে ৩ দশমিক ২, পাকিস্তনে ২ এর বেশি আর বাংলাদেশে এ হার ১ দশমিক ৪ শতাংশ। স্বাস্থ্য ব্যবস্থা যদি খুবই খারাপ হতো, তাহলে মৃত্যুর হার অন্যান্য দেশের মতো আরো বেশিই হতো।‘এ মহামারির জন্য বিশ্বের কোনো দেশই প্রস্তুত ছিলোনা। সব দেশে মহামারি মোকাবিলায় সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা চলছে। অন্য দেশে বিরোধী দল পরামর্শ দিচ্ছে, কিন্তু অন্ধের মতো সমালোচনা করছে না।’কিন্তু দু:খের বিষয়, ঈদের দিনেও বিএনপি সমালোচনা আর বিদ্বেষের রাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি’, বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। ’তথ্যমন্ত্রী জানান,মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব ঈদের নামাজ পড়ে তাদের ভাষায় ‘জিয়াউর রহমানের মাজারে’ দোয়া করে সরকারের প্রতি বিষোদগার করেছেন। আমি মির্জা ফখরুল সাহেবসহ যারা এধরণের সমালোচনা করছেন, তাদেরকে বলবো- এখন বিষোদগারের সময় নয়, আসুন আমরা সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে এ পরিস্থিতি মোকাবিলা করি।এসময় ২৫ বছরপূর্তি উপলক্ষে ডিআরইউ’র সকল সদস্যকে অভিনন্দন জানিয়ে করোনা পরিস্থিতিতে সাংবাদিকদের জন্য পরীক্ষা বুথ স্থাপন, সুরক্ষাসামগ্রী সংগ্রহ ও বিতরণসহ নানা পদক্ষেপের প্রশংসা ও সংগঠনটির মঙ্গল কামনা করেন তথ্যমন্ত্রী।‘মানানীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে গত ১১ বছরে দেশের গণমাধ্যমের ব্যাপক বিকাশ ঘটেছে। প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক মাধ্যম তিনগুণ হবার পাশাপাশি কয়েক হাজার অনলাইন সংবাদপোর্টাল হয়েছে, যেগুলোর নিবন্ধন বিষয়ে দ্রুত কাজ চলছে।” সমাজ ও রাষ্ট্রে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদের ভূমিকা অনেক বড় এবং একারণে ভুয়া সাংবাদিকতার বিরুদ্ধে সাংবাদিকদেরই ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা নেয়া প্রয়োজন’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বহুসময় আমাদের তৃতীয় নয়ন খুলে দেয়। এমন বেশকিছু প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে সমস্যা প্রতিকারে নিজের উদ্যোগের কথাও জানান তিনি। ডিআরইউ সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরীরর পরিচালনায় সহসভাপতি নজরুল কবীরসহ অন্যান্যের মধ্যে সভায় বক্তব্য রাখেন ডিআরইউ’র প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা ফিরোজ, প্রাক্তন সভাপতি ইলিয়াস হোসেন, প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, রাজু আহমেদ ও মুরসালিন নোমানী, দৈনিক বর্তমানের প্রধান প্রতিবেদক মোতাহার হোসেনসহ সীমিত সংখ্যক গণমাধ্যম প্রতিনিধি সামাজিক দূরত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রামে আরও ১৭৯ জনের দেহে করোনা,প্রকট হয়ে উঠছে আইসিইউ সংকট

চট্টগ্রামে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকায় প্রকট হয়ে উঠছে আইসিইউ সংকট। সোমবার (২৫ মে)  চট্টগ্রামে ৩৮০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আরও ১৭৯ জনের দেহে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরের ১৬৭ জন ও উপজেলা পর্যায়ে ১২ জন । চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান সোমবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৩২৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ১৭৯ জনের করোনা পাওয়া গেছে। এর মধ্যে মহানগর এলাকার ১৬৭ জন আছেন। বাকি ১২ জন বিভিন্ন উপজেলার। এছাড়া সোমবার বিআইটিআইডিতে ৫৫ টি নমুনা পরীক্ষা করে কারও করোনা শনাক্ত হয়নি। চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায় নতুন শনাক্ত ১২ জনের মধ্যে সাতকানিয়ার ১ জন, আনোয়ারার ২ জন, চন্দনাইশের ২ জন, পটিয়ার ৫ জন ও হাটহাজারীর ২ জন আছেন। এছাড়া সোমবার দুইজন পুরনো রোগীর পজিটিভ এসেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এদিকে, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ও কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের কারও নমুনা পরীক্ষা হয়নি সোমবার।দু’সপ্তাহে শুধুমাত্র করোনার জন্য বিশেষায়িত জেনারেল হাসপাতালের ১০ শয্যার আইসিইউ ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ৪১ জনের মধ্যে প্রয়োজনীয় সাপোর্ট না পেয়ে মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে আজ

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে আজ মঙ্গলবা ২৬ মে, । নদীবন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলের উপর দিয়ে দক্ষিণ/দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরের পূর্বাভাসে এসব তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।অন্যদিকে সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আকাশ আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। আবহওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। দক্ষিণ/দক্ষিণ-পশ্চিম থেকে ঘণ্টায় ৮-১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে। যা অস্থায়ীভাবে দমকা আকারে ঘণ্টায় ৩০ কিলোমিটার বেগে প্রবাহিত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।

পবিত্র ঈদুল ফিতরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধারা

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশের সব মুক্তিযোদ্ধাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের গজনবী রোডে মুক্তিযোদ্ধা পুনর্বাসন কেন্দ্রে (মুক্তিযোদ্ধা টাওয়ার-১) বসবাসরত শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্য এবং যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ফুল, ফল ও মিষ্টি পাঠান তিনি। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার সহকারী ব্যক্তিগত সচিব-২ গাজী হাফিজুর রহমান, প্রোটোকল অফিসার-২ এস এম খুরশীদ-উল-আলম এবং সহকারী প্রেস সচিব এ বি এম সরওয়ার-ই আলম সরকার সকালে এই উপহারসামগ্রী তাদের কাছে হস্তান্তর করেন। প্রধানমন্ত্রীর কর্মকর্তারা সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে মহামারি থেকে দেশবাসীকে রক্ষা ও এ সংকট থেকে আশু উত্তরণের জন্য সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন। মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ থেকে বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের প্রশংসা এবং তার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করা হয়। যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যরা প্রতিটি জাতীয় দিবস, বিশেষ করে স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস, ঈদ ও পয়লা বৈশাখের মতো উৎসবগুলোতে তাদের স্মরণ করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান এবং তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

লাইভ টিভি

ওয়ার্ড পরিক্রমা

আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিশিষ্ট বিদ্যুৎসাহী সমাজকর্মী, স্কাউট আন্দোলন এর কর্ণধার ও আলোর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা ও বসুন্ধরা শিশু কিশোর সংগঠন এর উপদেষ্টা আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা, প্রিয় স্যারের প্রতি আবু তাহের সর্দার স্মরণ সভা কমিটির উদ্যোগে এক স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কবি ও সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, বলেন আবু তাহের সর্দার সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকবেন। জন্মিলে মরিতে হবে এটি চিরন্তন সত্য। তবুও মানুষ তাঁর সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকতে পারে। সেজন্য যাঁরা কীর্তিমান তাঁরা তাঁদের সেবামুলক কাজের মাধ্যমে মানবসমাজে বেঁচে থাকেন বহু যুগ যুগ ধরে। তিনি বলেন, এ নশ্বর পৃথিবীতে সবই ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। অর্থাৎ, কোনো মানুষই পৃথিবীতে চিরকাল বেঁচে থাকতে পারে না। সেজন্য দেশ ও মানবকল্যাণে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাওয়ার মধ্য দিয়েই আবু তাহের সর্দার অমর হয়ে থাকবেন এ রাষ্ট্র সমাজে। এ জনসমাগম স্মরণ সভা থেকে তা বুঝ যায় তিনি কতবড় ত্যাগী মানুষ ছিলেন। তিনি দীর্ঘ ৬৩ বছর এ রাষ্ট্র সমাজের জন্য শ্রম দিয়েছেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনার মুক্ত মনের বিস্ময় প্রতিভা মানুষ ছিলেন আবু তাহের সর্দার। বক্তরা বলেন, মানুষের দুঃখ-দুর্দশাকে লাঘব করতে আবু তাহের সর্দারের প্রচেষ্টা অতুলনীয়; সমাজের আলোক বর্তিকা হয়ে তিনি সমুজ্জ্বল। আবু তাহের সর্দারের কর্মজীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজ বিনির্মানে তরুনদের এগিয়ে আসার শপথ নিতে হবে। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আবুল হাসেম, বখতিয়ার উদ্দীন সহ মরহুমের শুভানুধ্যায়ীরা।

খেলা

তামিম-লিটনের রেকর্ড জুটিতে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে লিটন দাস ও তামিম ইকবালের বিশ্ব রেকর্ড গড়া জুটির ম্যাচে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হেরে গেল জিম্বাবুয়ে।এর আগে একমাত্র টেস্টে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে হেরে যায় সফরকারী জিম্বাবুয়ে। আগামী ৯ ও ১১ মার্চ মিরপুর শেরেবাংলায় টাইগারদের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে অতিথিরা। হারলেই হোয়াইটওয়াশ। এমন সমীকরণের ম্যাচে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ করে জিম্বাবুয়ে। সিলেট আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে রীতিমতো তাণ্ডব চালান তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। বিকাল চারটায় বৃষ্টি শুরু হওয়ার আগে ৩৩.২ ওভারে ১৮২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তামিম-লিটন। দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফের যখন খেলা শুরু হয় তখন ম্যাচ নির্ধারণ হয় ৪৩ ওভারে। ব্যাটিংয়ে ঝড় তোলেন লিটন দাস। বৃষ্টির আগে ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেয়া লিটন ছাড়িয়ে যান দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নিজের আগের গড়া ১৫৪ রানের ইনিংসের রেকর্ড ভেঙে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ১৫৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তামিম। দুই দিনের ব্যবধানে তার সেই রেকর্ড ভেঙে দেন লিটন দাস। শুক্রবার ইনিংস শেষ হওয়ার ১৩ বল আগে একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন লিটন। সাজঘরে ফেরার আগে ১৪৩ বলে ১৬টি চার ও ৮টি ছক্কার সাহায্যে ১৭৬ রানের ইনিংস খেলেন লিটন। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের এই ইনিংস খেলার পথে শুধু তামিম ইকবালকেই নয়, কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা, রিকি পন্টিং ও কুমার সাঙ্গাকারার মতো তারকা ব্যাটসম্যানদের ছাড়িয়ে যান লিটন। লিটনের বিদায়ের আগেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৩তম এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৩তম সেঞ্চুরি করেন তামিম ইকবাল। ইনিংসের শুরুতে ওপেন করতে নেমে শেষ বল পর্যন্ত খেলে যান তামিম। আগের ম্যাচে ১৩৬ বলে ১৫৮ রান করা তামিম এদিন খেলেন ১০৯ বলে ৭টি চার ও ৮টি ছক্কায় ১২৮ রানের ইনিংস। লিটন-তামিমের জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪৩ ওভারে ৩ উইকেটে ৩২২ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সিকান্দার রাজার ৬১ আর ওয়েসলি মাধেভার ৪২ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭.৩ ওভারে ২১৮ রানে অলআউট হয়। ১২৩ রানের সহজ জয় পায় বাংলাদেশ।

সর্বশেষ সংবাদ
নগরীর ১২টি স্পটে চসিকর করোনা পরীক্ষা বুথ স্থাপন শুরু কাউন্সিলর মাজহার ও এটলির মৃত্যুতে নগর আওয়ামী লীগের শোক চলমান করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে -৩১ মে থেকেই অফিস খোলা করোনার জেরে অন্য রোগীরা চিকিৎসা পেতেও নানা ধরনের বিড়ম্বনার শিকার ৩০ টাকার সেই ওষুধেই দ্রুত সুস্থ হচ্ছে করোনা রোগী! নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক ঈদের দিনেও বিদ্বেষের রাজনীতি থেকে বিএনপি বের হতে পারেনি: তথ্যমন্ত্রী চট্টগ্রামে আরও ১৭৯ জনের দেহে করোনা,প্রকট হয়ে উঠছে আইসিইউ সংকট দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে আজ পবিত্র ঈদুল ফিতরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধারা