শীর্ষ সংবাদ

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন ৫ এপ্রিল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন আগামী ৫ এপ্রিল সকাল ১০টায়। এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ তথ্য জানান। এর আগে গত মঙ্গলবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারাদেশের আটটি বিভাগীয় কমিশনার ও ৬৪ জেলা প্রশাসক, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ মাঠ পর্যায়ের প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী।

রাজধানীর ১৮ এলাকায় করোনা রোগী শনাক্ত

দেশের ১০টি জেলায় এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৩৬ জন শনাক্ত হয়েছে ঢাকায়। রাজধানীর যেসব এলাকায় করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে তার মধ্যে মিরপুর অঞ্চল সবচেয়ে এগিয়ে। মণিপুর, সেনপাড়া, মিরপুর-১০ ও মিরপুর-১১ নম্বর এই তালিকায় রয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে নারীর তুলানায় পুরুষের সংখ্যাই বেশি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের সমন্বিত নিয়ন্ত্রণকক্ষের তথ্যমতে, রাজধানীর বাসাবো, পুরান ঢাকার বাংলাবাজার, মোহাম্মদপুর, লালমাটিয়া, হাজারীবাগ, মগবাজার, উত্তরা, উত্তরখান, যাত্রাবাড়ি, আজিমপুর, কলাবাগান, রামপুরা, মহাখালী, বনানী, গুলশান, বারিধারা, খিলক্ষেত এলাকায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত‌ রোগী শনাক্ত হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যানুযায়ী, বিদেশফেরত মানুষের মাধ্যমেই দেশে প্রথম করোনার সংক্রমণ ঘটেছে। ৬১ জন আক্রান্তের মধ্যে ১৬ জন বিদেশফেরত। বিদেশফেরতদের মধ্যে ইতালির ৬ জন, যুক্তরাষ্ট্রের ৩ জন, সৌদি আরবের ২ জন। এছাড়াও কুয়েত, বাহারাইন, ভারত, জার্মানি ও ফ্রান্সের একজন করে রয়েছে। বিভিন্ন সময়ে এই ১৬ জন দেশে আসে। এরপর থেকেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। আইইডিসিআর এর তথ্যানুযায়ী, রাজধানীর মিরপুর অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি ৯ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মণিপুরে‌ ৫জন, সেনপাড়ায় ২ জন, মিরপুর ১০ ও ১১ নম্বর এলাকায় একজন করে রোগী আছেন। রাজধানীর বাসাবো এলাকায় ৪ জন, পুরান ঢাকার বাংলাবাজার এলাকায় ৩ জন শনাক্ত হয়েছে। মোহাম্মদপুর, লালমাটিয়া, হাজারীবাগ, মগবাজার, উত্তরা ও উত্তরখানে ২ জন করে রোগী আছেন। এছাড়া যাত্রাবাড়ী, আজিমপুর, কলাবাগান, রামপুরা, মহাখালী, বনানী-গুলশান, বারিধারা ও খিলক্ষেত এলাকায় একজন করে রোগী শনাক্ত হয়েছেন। শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ গণমাধ্যমকে বলেন, এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২ হাজার ১১৩ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ জনসহ মোট ৬১ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৩৮ জন‌ পুরুষ। ২৩ জন নারী রয়েছেন। মৃত্যুবরণ করেছেন ৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৬ জন। আইইডিসিআর এর অধীনে চিকিৎসাধীন ২৯ জন। এদের ২২ জন বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। বাকি ৭জন বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। বর্তমানে আইসোলেশন আছেন ৮২ জন।

নগরীতে মশার ওষুধ ছিটানোয় গাফিলতি হলে কঠোর ব্যবস্থা মেয়র নাছির

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) পরিচ্ছন্ন কর্মীদেরকে মশা ও এডিস মশার প্রজনন স্থান ধ্বংস করার লক্ষ্য নিয়ে নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করারও আহ্বান জানিয়ে সিটি মেয়র আ. জ. ম নাছির উদ্দীন বলেন নগরে মশার ওষুধ ছিটানোয় গাফিলতি হলে ওয়ার্ড সুপারভাইজারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে টাইগারপাসস্থ চসিক সম্মেলন কক্ষে ওয়ার্ড সুপারভাইজারদের সভায় মেয়র এ হুঁশিয়ারি দিয়েবলেন, নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে ৪টি হ্যান্ড স্প্রে মেশিনের মাধ্যমে মশা ও এডিস মশার প্রজনন স্থানে লারভিসাইড ওষুধ ছিটানো হবে। এই লক্ষ্য নিয়ে ইতোমধ্যে ১৫০ টি নতুন হ্যান্ড স্প্রে মেশিন ক্রয় করা হয়েছে। ১৬৪ জন পরিচ্ছন্নকর্মী একযোগে প্রতিদিন ৪১ ওয়ার্ডে নালা-নর্দমাসহ বাড়ির আঙ্গিনায় ওষুধ ছিটাচ্ছেন। মেয়র বলেন, এ কাজে নিয়োজিত প্রত্যেককে স্বচ্ছতা ও সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে। এতে কোনো ধরণের গাফিলতি সহ্য করা যাবে না। কোনো ধরনের অভিযোগ পাওয়া গেলে সঙ্গে সঙ্গে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এতে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে তিনি সংশ্লিষ্টদের সতর্ক করে দেন। তিনি বলেন, চসিকের হাতে মশা এবং মশার লার্ভা ধ্বংসকারী পর্যাপ্ত ওষুধ রয়েছে। প্রয়োজনে আরও ওষুধ কেনা হবে। তাই মশা এবং চিকনগুনিয়া ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রতি ওয়ার্ডের ঝোপঝাড় পরিস্কারকরণ ও নালা-নর্দমায় যেখানে মশা জন্ম হয় সেখানে ওষুধ ছিটানো হবে। মেয়র বলেন, মশা নিধন কার্যক্রম শতভাগ নিশ্চিতকরণের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুস্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে। এ কাজে নিয়োজিত কর্মীরা করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে জীবাণুনাশক ওষুধও ছিটাচ্ছেন। মেয়র বলেন, আমরা কিছু লার্ভিসাইড (মশার ডিম ধ্বংসকারী) ওষুধ সংগ্রহ করেছি। এগুলো দিয়ে নগরীতে বিভিন্ন ওয়ার্ডে লার্ভিসাইড ছিটাচ্ছি। মশার উপদ্রব যতদিন কমবে না ততদিন পর্যন্ত এই ঔষুধ ছিটানো হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। ডেঙ্গু রোগ সম্পর্কে তিনি নগরবাসীর মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে মাইকিং, প্রচারপত্র বিলি, পত্র-পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রদান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে সচেতনামূলক কর্মসূচি গ্রহণ এবং নালা-নর্দমা পরিস্কারসহসহ সংশ্লিষ্টদের বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণের নির্দেশ দেন। মেয়র বলেন, পরিস্কার, স্বচ্ছ ও বদ্ধ পানি এডিস মশার প্রজননক্ষেত্র। তাই বাসাবাড়ির আশপাশে ডাবের খোসায়, ফুলের টবে, ছাদে, ফ্রিজের নিচের ট্রেতে যাতে পানি জমে না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। চসিকে ১১০টি জার্মানির ফগার মেশিন ও ৩০০টি হ্যান্ড স্প্রে মেশিন রয়েছে উল্লেখ করে মেয়র চসিকের এই উদ্যোগে নগবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।

করোনা মোকাবিলায় ২৫ লাখ রুপি দিলেন লতা মঙ্গেশকর

স্বর্ণালী প্রিয়া ডেক্সঃ করোনা ভাইরাসের কারণে ২১ দিনের লকডাউনে রয়েছে। এই সময়ে বিপাকে পড়েছেন দেশটির শ্রমজীবী মানুষ। তাদের সহায়তায় এবার এগিয়ে এলেন ভারতের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী লতা মঙ্গেশকর। ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানান,এই সুর সম্রাজ্ঞী ভারতের মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ২৫ লাখ রুপি অনুদান দেন। শুধু লতা নন, করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় পরিচালক রোহিত শেঠিও।ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এম্লয়িজের তহবিলে ৫১ লক্ষের অনুদান দেন চেন্নাই এক্সপ্রেসের পরিচালক। বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে দৈনিক মজুরিতে যারা কাজ করেন তাদের সাহায্যের জন্যই ওই অর্থ অনুদান দিয়েছেন বলে জানান রোহিত। উল্লেথ্য, বলিউডের জনপ্রিয় পরিচালকের পাশাপাশি অক্ষয় কুমার, সালমান খান, হৃতিক রোশন, কার্তিক আরিয়ান, সারা আলি খান, আলিয়া ভাট, ভিকি কৌশল, রাজকুমার রাও’সহ অনেকেই এগিয়ে এসেছেন করোনা মোকাবিলায়। প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলসহ ৯টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের তহবিলে অনুদান দেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। কারিনা কাপুর ও সাইফ আলি খানও এগিয়ে আসেন ইউনিসেফসহ আরও ২টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের তহবিলে অনুদান দিয়ে।

আজ জাতীয় শোক দিবস পালন করবে চীন

আজ শনিবার(৪ এপ্রিল )হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারানো নাগরিকদের স্মরণে জাতীয় শোক দিবস পালন করবে চীন।আজ সকাল ১০টায় (স্থানীয় সময়) পুরো দেশে একযোগে ৩ মিনিটের নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে শুরু হবে দিবসটি।চীনের রাষ্ট্রীয় সংস্থা সিয়ানহুয়া তাদের এক প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এতে বলা হয়, সমগ্র চীনসহ বিদেশি প্রত্যেকটি রাষ্ট্রে যেখানে দূতাবাস, কনস্যুলেট রয়েছে- সেখানে করোনায় নিহতদের স্মরণে একযোগে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হবে। সর্বত্র তিন মিনিট নীরবতা পালন করা হবে মৃত নাগরিকদের জন্য। দিবসটি সফল করতে দেশের জনগণের জন্য নির্ধারিত প্রত্যেকটি বিনোদন কার্যক্রম স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছে দেশটির সরকার। উহান শহর থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে চীনে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৩২২ জনের। আক্রান্তের সংখ্যা কমে বর্তমানে ৮১ হাজার ৬২০। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭৬ হাজার ৫৭১ জন।

চট্টগ্রামে চিকিৎসকদের জন্য ২ হাজার পিপিই দিল এস আলম গ্রুপ

করোনার পরিস্থিতিতে চট্টগ্রামে চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিতদের জন্য ২ হাজার পার্সোনাল প্রটেকশন ইক্যুইপমেন্ট (পিপিই) দিয়েছে দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পগ্রুপ ‘এস আলম’।শুক্রবার চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদের পক্ষে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন ও সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বির হাতে পিপিইগুলো তুলে দেন এস আলম গ্রুপের কর্মকর্তা আকিজ উদ্দিন। এসময় জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন জানান, চীন থেকে দেশে পিপিই এসেছে। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের শিল্পপতিরাও এগিয়ে আসছেন। এস আলম গ্রুপ দুই হাজার পিপিই দিয়েছে। যেসব চিকিৎসক পিপিই না থাকার কারণে চিকিৎসা দিতে ভয় পাচ্ছেন, তাদের ভয় আর থাকবে না। আমাদের পিপিই নিয়ে সংকট কেটে যাবে। তিনি বলেন, সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতালেও পিপিইগুলো পাঠানো হবে যাতে চট্টগ্রামে চিকিৎসাসেবা সচল থাকে। সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান,করোনাভাইরাস নিয়ে একটা আতঙ্ক অবশ্যই আছে। এজন্য চিকিৎসাসেবা বন্ধ হয়ে যায়নি। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় স্বাস্থ্য বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তবে প্রত্যেকের কাছে পিপিই পৌঁছে গেলে কারও মধ্যে সেই আতঙ্কও আর থাকবে না। এস আলম যে পিপিইগুলো দিয়েছে সেগুলো ওয়াশেবল। জীবাণুনাশক হওয়াতে এসব পিপিই সম্পূর্ণভাবে ব্যবহারের উপযোগী।দেশের যেকোনো প্রয়োজনে এস আলম গ্রুপ ও গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদ পাশে ছিলেন, ভবিষ্যতেও থাকবেন। করোনা সংকট শুরু হওয়ার পর পিপিইগুলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ফর্মূলা অনুযায়ী এস আলম গ্রুপের পক্ষ থেকে বানানো হয়েছে। আরও বানানো হবে। চট্টগ্রামের প্রত্যেকটি উপজেলায় এস আলম গ্রুপ পিপিই সরবরাহ করবে। সভায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ কামাল হোসেন, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) একেএম এমরান ভূইয়া, চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. অসীম কুমার নাথ (উপপরিচালক), জেলা স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধায়ক সুজন বড়ুয়া প্রমূখ।

চট্টগ্রামে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত

চট্টগ্রাম বিআইটিআইডিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগী শনাক্ত হয়।শুক্রবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি। তিনি জানান,ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে করোনাভাইরাসে নমুনা পরীক্ষায় একজনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত রোগী বর্তমানে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে আইসোলোশনে রয়েছেন। চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির বলেন,চট্টগ্রাম নগরীর দামপাড়া থেকে ৬৭ বছরের এক পুরুষকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেসন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। শনাক্ত রোগী বিদেশ ফেরত কারো সংস্পর্শে থাকার নমুনা পায়নি বলে তিনি জানান।

কক্সবাজারের টেকনাফে ১৫টি বাড়ি ও দোকান লকডাউন

ঢাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী) সদস্যের করোনা পজেটিভ হওয়ায় কক্সবাজারের টেকনাফে শ্বশুরবাড়িসহ ১৫টি বাড়ি ও দোকান লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। তার মধ্যে ৭টি দোকান ও ৮টি বাড়ি। শুক্রবার (৩ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ি ও দোকানগুলো লকডাউন করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. টিটু চন্দ্র শীল। জানা গেছে, আক্কাস নামে এক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্য ঢাকা থেকে টেকনাফ পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়ায় শ্বশুরবাড়িতে গত ২০ মার্চ হতে ২৫ মার্চ পর্যন্ত অবস্থান করেন। এখানে তিনি জ্বর-সর্দিতে ভোগেন। তখন প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ভালোও হয়ে যান। এরপর তিনি গত ২৬ মার্চ টেকনাফ থেকে ঢাকায় চলে যান। ঢাকায় সর্দি, জ্বর ও কাশিতে আক্রান্ত হন। এরপর ৩ এপ্রিল ঢাকায় পরীক্ষা করানো হলে কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়া যায়। তাকে আইসোলেশনে নেওয়া হয়। তারই সূত্র ধরেই শুক্রবার রাতেই টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. সাইফুল ইসলাম, টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ, টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. টিটু চন্দ্র শীলের নেতৃত্বে একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে এসব বাড়ি ও দোকানগুলো লকডাউন ঘোষণা করে। এ প্রসঙ্গে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. টিটু চন্দ্র শীল বলেন, ‘শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকা এক র‌্যাব সদস্যকে ঢাকায় হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। তার সংস্পর্শে আসা টেকনাফের একটি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। আজ(শনিবার) বাড়ির লোকজনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য কক্সবাজারে পাঠানো হবে।’

মিরসরাইয়ে অস্বচ্ছল পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

নুর নবী রাসেল.মিরসরাই: চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন শ্রমজীবী ও দরিদ্র মানুষের মাঝে ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ করেছে মিরসরাই পৌরসভার সাবেক পৌর প্রশাসক আলহাজ্ব আজহারুল হক চৌধুরী নওশা মিয়া। শুক্রবার মিরসরাই উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে পৌরসভার প্রায় ২ শতাধিক পরিবারের মাঝে এসব ত্রাণ দেওয়া হয়। ত্রাণ পেয়ে খুশি কর্মহীন ও দরিদ্র মানুষগুলো। এসব খাদ্য সামগ্রীতে ৫ কেজি চাল, ৩ কেজি আলু, ১ কেজি পেঁয়াজ, ২ কেজি ডাল, ১ কেজি তেল ও ১ কেজি লবণ রয়েছে। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ রুহুল, আমিন, মিরসরাই পৌরসভার সাবেক পৌর প্রশাসক আলহাজ্ব আজহারুল হক চৌধুরী নওশা মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জুয়েল চৌধুরী, মিরসরাই প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. নুরুল আলম, সমাজকর্মী রাফেল চৌধুরী ও মোফাজ্জেল হোসেন চৌধুরী পাভেল উপস্থিত ছিলেন। আলহাজ্ব আজহারুল হক চৌধুরী নওশা মিয়া বলেন, আমি সুদীর্ঘ ২২ বছর চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই সদর ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের সেবায় নিয়োজিত ছিলাম। এই ইউনিয়নের মানুষগুলো আমার আপনজন, ওরাই আমার প্রতিবেশি। আমি অতিতেও মানুষের সুখে-দুঃখে ছিলাম। এখনও আছি, ভবিষ্যৎও থাকবো যতদিন আমি বেঁচে থাকি। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশও করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মিরসরাইয়ে অঘোষিত লকডাউনের জন্য ঘরবন্দী শ্রমজীবী ও দরিদ্র মানুষদের জন্য ত্রাণের ব্যবস্থা করেছি। এ বিষয়ে মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিন বলেন, ‘সরকারের পাশাপাশি নওশা মিয়ার মতো যারা বিত্তশালী আছেন তারা সবাই যেন এগিয়ে আসে এবং ওনার এই কার্যক্রম যেন চলমান থাকে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের সম্ভাব্য ভ্যাকসিন পাওয়া গেলো

স্বর্ণালী প্রিয়া ডেক্সঃ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস ঠেকাতে প্রকোপ ঠেকাতে এর ভ্যাকসিন তৈরির জন্য কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের বহু দেশ। তবে এবার মার্কিন পিটার্সবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানান করোনা ভাইরাসের সম্ভাব্য ভ্যাকসিন পেয়ে গেছেন তারা।ভ্যাকসিনটি ইতোমধ্যে ইঁদুরের মধ্যে প্রয়োগ করা হয়েছে । এতে ইঁদুরের দেহে করোনা প্রতিরোধে যথেষ্ট অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে বলেও জানান বিজ্ঞানীরা। কোভিড-১৯ ভাইরাসটির সঙ্গে সার্স এবং মার্স ভাইরাসটি গভীর সম্পর্কযুক্ত । এ থেকে আমরা জানতে পেরেছি যে স্পাইক প্রোটিন নামের একটি নির্দিষ্ট প্রোটিন সম্পর্কে যা করোনা প্রতিরোধে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারে। আগামী কয়েকমাসের মধ্যে এটি মানুষের শরীরে পরীক্ষা করা হবে। তবে ভ্যাকসিনটি নিয়ে শঙ্কার কথাও বলছেন বিজ্ঞানীরা। কারণ এটি খুব বেশিদিন ইঁদুরের শরীরে পরীক্ষা করা হয়নি। আর তাই এটি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কতক্ষণ কাজ করতে পারবে সেটি নিয়ে এখনো দ্বিধায় রয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এ বিষয়ে গ্যাম্বোত্তো বলেন, মহামারির সময় ভ্যাকসিন প্রয়োজন এটাই প্রথম প্রয়োজনীয়তা। করোনায় এ পর্যন্ত বিশ্বে আক্রান্ত হয়েছে ১০ লাখ ১৮ হাজার ১৪৯ জন। মারা গেছেন ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ।

লাইভ টিভি

ওয়ার্ড পরিক্রমা

আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিশিষ্ট বিদ্যুৎসাহী সমাজকর্মী, স্কাউট আন্দোলন এর কর্ণধার ও আলোর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা ও বসুন্ধরা শিশু কিশোর সংগঠন এর উপদেষ্টা আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা, প্রিয় স্যারের প্রতি আবু তাহের সর্দার স্মরণ সভা কমিটির উদ্যোগে এক স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কবি ও সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, বলেন আবু তাহের সর্দার সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকবেন। জন্মিলে মরিতে হবে এটি চিরন্তন সত্য। তবুও মানুষ তাঁর সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকতে পারে। সেজন্য যাঁরা কীর্তিমান তাঁরা তাঁদের সেবামুলক কাজের মাধ্যমে মানবসমাজে বেঁচে থাকেন বহু যুগ যুগ ধরে। তিনি বলেন, এ নশ্বর পৃথিবীতে সবই ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। অর্থাৎ, কোনো মানুষই পৃথিবীতে চিরকাল বেঁচে থাকতে পারে না। সেজন্য দেশ ও মানবকল্যাণে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাওয়ার মধ্য দিয়েই আবু তাহের সর্দার অমর হয়ে থাকবেন এ রাষ্ট্র সমাজে। এ জনসমাগম স্মরণ সভা থেকে তা বুঝ যায় তিনি কতবড় ত্যাগী মানুষ ছিলেন। তিনি দীর্ঘ ৬৩ বছর এ রাষ্ট্র সমাজের জন্য শ্রম দিয়েছেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনার মুক্ত মনের বিস্ময় প্রতিভা মানুষ ছিলেন আবু তাহের সর্দার। বক্তরা বলেন, মানুষের দুঃখ-দুর্দশাকে লাঘব করতে আবু তাহের সর্দারের প্রচেষ্টা অতুলনীয়; সমাজের আলোক বর্তিকা হয়ে তিনি সমুজ্জ্বল। আবু তাহের সর্দারের কর্মজীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজ বিনির্মানে তরুনদের এগিয়ে আসার শপথ নিতে হবে। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আবুল হাসেম, বখতিয়ার উদ্দীন সহ মরহুমের শুভানুধ্যায়ীরা।

খেলা

তামিম-লিটনের রেকর্ড জুটিতে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে লিটন দাস ও তামিম ইকবালের বিশ্ব রেকর্ড গড়া জুটির ম্যাচে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হেরে গেল জিম্বাবুয়ে।এর আগে একমাত্র টেস্টে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে হেরে যায় সফরকারী জিম্বাবুয়ে। আগামী ৯ ও ১১ মার্চ মিরপুর শেরেবাংলায় টাইগারদের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে অতিথিরা। হারলেই হোয়াইটওয়াশ। এমন সমীকরণের ম্যাচে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ করে জিম্বাবুয়ে। সিলেট আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে রীতিমতো তাণ্ডব চালান তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। বিকাল চারটায় বৃষ্টি শুরু হওয়ার আগে ৩৩.২ ওভারে ১৮২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তামিম-লিটন। দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফের যখন খেলা শুরু হয় তখন ম্যাচ নির্ধারণ হয় ৪৩ ওভারে। ব্যাটিংয়ে ঝড় তোলেন লিটন দাস। বৃষ্টির আগে ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেয়া লিটন ছাড়িয়ে যান দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নিজের আগের গড়া ১৫৪ রানের ইনিংসের রেকর্ড ভেঙে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ১৫৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তামিম। দুই দিনের ব্যবধানে তার সেই রেকর্ড ভেঙে দেন লিটন দাস। শুক্রবার ইনিংস শেষ হওয়ার ১৩ বল আগে একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন লিটন। সাজঘরে ফেরার আগে ১৪৩ বলে ১৬টি চার ও ৮টি ছক্কার সাহায্যে ১৭৬ রানের ইনিংস খেলেন লিটন। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের এই ইনিংস খেলার পথে শুধু তামিম ইকবালকেই নয়, কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা, রিকি পন্টিং ও কুমার সাঙ্গাকারার মতো তারকা ব্যাটসম্যানদের ছাড়িয়ে যান লিটন। লিটনের বিদায়ের আগেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৩তম এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৩তম সেঞ্চুরি করেন তামিম ইকবাল। ইনিংসের শুরুতে ওপেন করতে নেমে শেষ বল পর্যন্ত খেলে যান তামিম। আগের ম্যাচে ১৩৬ বলে ১৫৮ রান করা তামিম এদিন খেলেন ১০৯ বলে ৭টি চার ও ৮টি ছক্কায় ১২৮ রানের ইনিংস। লিটন-তামিমের জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪৩ ওভারে ৩ উইকেটে ৩২২ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সিকান্দার রাজার ৬১ আর ওয়েসলি মাধেভার ৪২ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭.৩ ওভারে ২১৮ রানে অলআউট হয়। ১২৩ রানের সহজ জয় পায় বাংলাদেশ।

সর্বশেষ সংবাদ