চলতি মাসে রেমিটেন্স প্রবাহ সবচেয়ে বেশি

পোস্ট করা হয়েছে 28/08/2017-08:07am:    ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে চলতি মাসে রেমিটেন্স প্রবাহ জোরদার হয়েছে। চলতি মাসের ১৮দিনে প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন ৭১ কোটি ডলারের বেশি। সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স এসেছে সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে। বছরে দু’ঈদে নিয়মিত খরচের পাশাপাশি বাড়তি খরচ হয়। প্রবাসীরা ঈদের জন্য টাকা সঞ্চয় করেন। সেই টাকা পাঠিয়ে দেন একসাথে ঈদের জন্য। বিভিন্ন দেশে কর্মরত বাংলাদেশিরা প্রচুর অর্থ বাড়িতে পাঠান ঈদের আগে। সে কারণে রেমিটেন্সের পরিমাণ বেড়ে যায় স্বাভাবিকের তুলনায়। ব্যাংক কর্মকর্তারা জানান, প্রতি বছর দু’ঈদকে সামনে রেখে বাড়তি রেমিটেন্স আসে। বছরের অন্য ১০ মাসের তুলনায় এ সময় রেমিটেন্স আসে অধিক। অপর এক ব্যাংক কর্মকর্তা জানান, প্রতিমাসে রেমিটেন্স আসে। তবে দু’ঈদের আগে এ সময়ে রেমিটেন্সে উল্লম্ফন দেখা যায়। স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি আসে। এর পরিমাণ ৭ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ পর্যন্ত। কোরবানির পশুসহ বিভিন্ন কেনাকাটার জন্য প্রবাসীরা তাদের পরিবার–পরিজনের কাছে বেশি টাকা পাঠানোয় রেমিটেন্স প্রবাহ বেড়েছে। অবশ্য বাংলাদেশ ব্যাংকও বেশকিছু উদ্যোগ নিয়েছে। এতে রেমিটেন্স প্রবাহে কিছুটা ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেক্স রিজার্ভ এন্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, চলতি অর্থবছরের প্রথম মাসে জুলাইতে রেমিটেন্স এসেছে ১১১ কোটি ডলার । গত অর্থবছরের জুলাইতে তা ছিল ১০০ কোটি ডলার। চলতি মাসে ১৮ তারিখ পর্যন্ত ৭১ কোটি ডলারের বেশি প্রবাসী আয় এসেছে ব্যাংকিং চ্যানেলে। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশে প্রায় প্রতিটি শাখায় রেমিটেন্স হেল্প ডেস্ক চালু করা হয়েছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে রেমিটেন্স তথ্য বেনিফিসিয়ারিকে দেয়া নিশ্চিত করা হয়েছে। গ্রাহকরা যাতে কোনরূপ হয়রানি না হয় সেজন্য বিভিন্ন নির্দেশনা কার্যকর হয়েছে। এসব প্রেক্ষাপটে রেমিটেন্স প্রবাহ বৃদ্ধি পেয়েছে। চলতি মাসে রেমিটেন্সের অর্ধেকের বেশি এসেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে। দেশগুলো হলো : সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার, কাতার, ওমান, কুয়েত ও বাহরাইন। বাংলাদেশের জিডিপিতে ১২ শতাংশ অবদান রাখে রেমিটেন্স। প্রবাসী আয় প্রবাহ বৃদ্ধিতে চাঙ্গা হয়ে ওঠেছে গ্রামীণ অর্থনীতি। ব্যাংকিং চ্যানেল আগের চেয়ে অনেক উন্নত হয়েছে। কিন্তু এখনও প্রবাসীরা অনেকটা হুন্ডি–নির্ভর। আগের তুলনায় হ্রাস পেয়েছে এই নির্ভরতা। দেশের অর্থনীতির অন্যতম প্রাণ রেমিটেন্স। এই রেমিটেন্সের নি¤œমুখী প্রবণতায় উদ্বিগ্ন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রবাসীদের রেমিটেন্স পাঠাতে ব্যাংক মাশুল না নেয়ার ঘোষণা দেন।

সর্বশেষ সংবাদ