ব্যাংকিং খাতে বড় দুর্নীতি বন্ধ হয়েছে: গভর্নর

পোস্ট করা হয়েছে 06/12/2014-07:55pm:    ঢাকা অফিসঃ বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের কঠোর নজরদারি ও ভূমিকার কারণে ব্যাংকিং খাতের কিছু বড় অনিয়ম ও দুর্নীতি প্রতিরোধ করা সম্ভব হয়েছে। আর এ কারণেই বিগত বছরগুলোর তুলনায় ব্যাংকিং খাতের সাফল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। শনিবার রাজধানীর মিরপুরে বাংলাদেশ ইন্সস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম)-এ ‘বার্ষিক ব্যাংকিং কনফারেন্স-২০১৪- এ তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, দ্রুত আধুনিকায়ন করার ফলেই ব্যাংকিংখাতেবড় অনিয়মরোধ করা সম্ভব হয়েছে। এখন অনলাইনে টাকা ট্রান্সফার, ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার, অনলাইনে ঋণের তথ্য ও তদারকি সহজতর হয়ে পড়েছে। এ সময় বিগত বছরগুলোর তুলনায় ব্যাংকিং খাতের বর্তমান সময়ের সাফল্য তুলে ধরে তিনি বলেন, বেসরকারি খাতে ঋণের প্রবৃদ্ধি জাতীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে (জিডিপি) গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। ২০০৮-০৯ অর্থবছরে জিডিপিতে ব্যাংক খাতের অবদান ছিল ৪৬ শতাংশ। ২০১৩ সাল শেষে তা বেড়ে হয় ৫৫ শতাংশে। তিনি বলেন, ২০০৮-০৯ সালে বিশ্বের উন্নত দেশগুলো মূলধারার অর্থনীতিতে অর্থায়ন করেছে। কিন্তু আমরা সাধারণ মানুষকে অন্তর্ভূক্ত করে প্রকৃত অর্থনীতিতে অর্থায়ন করার চেষ্টা করেছি। এ কারণে বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দায় বাংলাদেশে এর কোনো প্রভাব পড়েনি। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিআইবিএম- এর পরিচালক ড. তৌফিক আহমেদ চৌধুরী। তিনি জানান, বর্তমানে দেশে ৮ কোটি ৫০ লাখ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। যার মধ্যে ৩ কোটির মতো রয়েছে স্কুল ব্যাংকিং ও কৃষকের ১০ টাকার অ্যাকাউন্ট। বাংলাদেশে ২০১৩ সাল শেষে ব্যাংকিং খাতের মোট সম্পদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার বিলিয়ন টাকা। যা এর আগের বছরের চেয়ে ১৩ দশমিক ৮ শতাংশ বেশি। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য দেন অনুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যন প্রফেসর ড. শাহ মো. আহসান হাবিব। বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিভিন্ন ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এ সময় উপস্থিত ছিলেন ।

সর্বশেষ সংবাদ