শীর্ষ সংবাদ

গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য ২০ কোটি টাকার প্রণোদনার প্রস্তাব

গণমাধ্যম কর্মীদের চলমান সংকট নিরসনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ২০ কোটি টাকার প্যাকেজ প্রণোদনার প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন। বুধবার (১ এপ্রিল) বিকেলে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এর সঙ্গে বিশেষ বৈঠক শেষে লিখিত প্রস্তাবটি মন্ত্রীর হাতে তুলে দেন সাংবাদিক নেতারা। এসময় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‌‘বিএনপির উদ্দেশ্য সাহায্য করা নয়, সরকারের ভুল না থাকলেও ভুল খোঁজার চেষ্টা করা। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকরা করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিএনপি’র দেয়া জাতীয় কমিটি গঠনের প্রস্তাবের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি একথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী এসময় প্রতিবেশী দেশের উদাহরণ দিয়ে বলেন, ‘ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধী লিখিতভাবে সেদেশের প্রধানমন্ত্রীকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের নানা উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজের কথা জানিয়েছেন, কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। বিএনপি সেটি করতে ব্যর্থ হয়েছে।’ আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান এসময় উপস্থিত ছিলেন। বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্য এ সঙ্কট মোকাবিলায় তাদের হাত প্রসারিত করার উদ্দেশ্যে নয় উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তাদের চিরাচরিত স্বভাব অনুযায়ী এই দুর্যোগের মুহূর্তে ভুল না থাকলেও সরকারের ভুল খোঁজার চেষ্টা করাই তাদের উদ্দেশ্য। তাদের দলের পক্ষ থেকে রিজভী সাহেবসহ অনেকেই ক’দিন আগেও সরকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য বক্তব্য রেখেছেন।’ আমরা বারবার বলেছি, বিএনপি আমাদের সাথে থেকে কাজ করতে পারে, কোনো বাধা নেই, আমরা স্বাগত জানাবো, তাদের যদি কোনো পরামর্শ থাকে, তারা দিতে পারে, বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। ড. হাছান বলেন, ‘আজ এই মহাদুর্যোগের সময় যখন সমস্ত পৃথিবী থমকে গেছে, তখন সরকার অত্যন্ত বিচক্ষণতার সঙ্গে ধৈর্যের সঙ্গে পর্যায়ক্রমে নানা পদক্ষেপ গ্রহণের কারণে এখনো পর্যন্ত আমাদের দেশে পরিস্থিতি অনেক দেশের তুলনায় ভালো আছে। তার মানে এই নয় যে, সরকার স্বস্তির ঢেঁকুর তুলছে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে যেকোনো পরিস্থিতির জন্য সারাদেশে প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। পাশাপাশি বিত্তবানরাও এগিয়ে আসছেন এবং সাংবাদিকরা সেগুলো গণমাধ্যমে তুলে আনছেন। সবাই সাড়া দিয়েছে।’ বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে সভাপতি মোল্লা জালাল, মহাসচিব শাবান মাহমুদ এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু এসময় মন্ত্রীর কাছে করোনা পরিস্থিতিতে সাংবাদিকদের পক্ষে কয়েক দফা দাবি সম্বলিত একটি পত্র হস্তান্তর করেন। মন্ত্রী পত্রটি গ্রহণ করেন ও বৈশ্বিক এ দুর্যোগ, যা থেকে বাংলাদেশও মুক্ত থাকেনি, এর মধ্যে প্রতিকূল পরিবেশে সাংবাদিকদের ভূমিকার প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, মানুষকে সচেতন করতে এবং কেউ যাতে জনমনে গুজব-বিভ্রান্তি-আতঙ্ক ছড়াতে না পারে সেজন্য গণমাধ্যম ও সরকার আরো ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে, সেবিষয়ে আলোচনায় ঐকমত্য হয়েছে।

বৈশাখ ও পার্বত্য অঞ্চলের বৈসাবির সব অনুষ্ঠান স্থগিত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পহেলা বৈশাখ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের বৈসাবির সব ধরনের অনুষ্ঠান স্থগিত নির্দেশ দিয়েছে সরকার। (৩১ মার্চ) মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ আবদুল ওয়াদুদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)-এর বিস্তার রোধকল্পে জনসমাগম পরিহার করার লক্ষ্যে আসন্ন পহেলা বৈশাখ ১৪২৭ বা এই সময়ে সকল ধরনের অনুষ্ঠান, কার্যক্রম (তিন পার্বত্য জেলার লবসাবিসহ) স্থগিত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহেণের জন্য নির্দেশ ক্রমে অনুরোধ করা হলো। এর আগে গত মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এ নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি ডিজিটাল উপায়ে নববর্ষের অনুষ্ঠান পালন করতে আহ্বান জানান। আর মাত্র দুসপ্তাহ পরেই বাঙালি জাতির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। প্রতিবছর বাঙালিরা বেশ জাঁকজমকভাবে পালন করে নববর্ষের দিনটি। বর্ণিল উৎসবে মেতে উঠে পুরো দেশ।

আজ বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস

আজ বৃহস্পতিবার (২এপ্রিল)বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস । অটিজম বিষয়ে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি ও তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও দিবসটি পালন করা হচ্ছে। অটিজমে আক্রান্ত শিশু ও বয়স্কদের জীবনযাত্রার উন্নয়নে সহায়তার প্রয়োজনীয়তাকে তুলে ধরতে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ ২০০৭ সালে ২ এপ্রিলকে ‘বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস’ হিসেবে পালনের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর থেকে প্রতি বছর দিবসটি পালন করা হচ্ছে। অটিজম ছিল একটি অবহেলিত জনস্বাস্থ্য ইস্যু। এ সম্পর্কে সমাজে নেতিবাচক ধারণা ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র কন্যা ও স্কুল সাইকোলজিস্ট সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের নিরলস প্রচেষ্টায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অটিজম বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। তিনি ২০০৭ সালে এ বিষয়ে দেশে কাজ শুরু করেন। সায়মা ওয়াজেদ এ অবহেলিত জনস্বাস্থ্য ইস্যুতে তার বিরাট অবদানের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বীকৃতি পেয়েছেন।

সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ না ফেরার দেশে চলে গেলেন

সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ আর নেই। (ইন্নালিল্লাহে ... রাজেউন)। তিনি আজ বৃহস্পতিবার ভোরে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। জননেতা আলহাজ্ব শামসুর রহমান শরীফ এমপি পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক ভূমিমন্ত্রী, ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। সুদীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে অত্যাচার, জেল-জুলুম, নির্যাতন সহ্য করেছেন বর্ষিয়াণ এই নেতা। পাশাপশি ১৯৯৬ হতে পর পর ৫ বার তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ঈশ্বরদী ও আটঘরিয়াবাসীর কাছে বেশ জনপ্রিয় ছিলেন। বিগত সময়ে তিনি অত্যন্ত সুচারুভাবে ভূমিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্ণাঢ্য জীবনে তিনি শুধু ঈশ্বরদী বা আটঘরিয়া নয় পাবনা জেলার মধ্যে সকলের প্রিয় ডিলু ভাই হিসেবে পরিচিত ছিলেন। জাতীয় সংসদে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সদস্য থাকলেও ভাষা সৈনিক কেউই ছিলেন না। তার সময়ে তিনিই ছিলেন একমাত্র ভাষা সৈনিক। পাবনা জেলা স্কুলের ছাত্র থাকা অবস্থায় তিনি ভাষা আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন। জননেতা শরীফ একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রাক্কালে ২৯ শে মার্চ ঈশ্বরদীর মাধপুরে পাকবাহিনীর প্রতিরোধ যুদ্ধের নেতৃত্ব দেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাঠে আশিতেও তিনি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে একজন তরুণের মতো ছুটে বেড়িয়েছেন।

করোনা বিস্তার রোধে কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী, একশন শুরু

আজ থেকে আরও কঠোর অবস্হানে সেনাবাহিনী দেশের সকল স্থানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং হোম কোয়ারেন্টাইনের বিষয়টি কঠোরভাবে নিশ্চিত করবে সেনাবাহিনী। সরকার প্রদত্ত নির্দেশাবলী অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে অন্য দেশের মতো দেশেও জনজীবনে চলাচলে নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তা করতে এরই মধ্যে টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী। বিভিন্ন জেলায় এরই মধ্যে টহল দেয়ার খবর আসছে। অনেকে দ্রুত সরে পরছেন সেনাবাহিনীর অবস্হান দেখে।ব্যপক নিরাপত্তা দিতে এ ব্যবস্হাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, গত ২৪ মার্চ থেকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য সারাদেশে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে ঘরে থাকার আহ্বান সিটি মেয়র

করোনাভাইরাসের প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে সরকার ঘোষিত ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটিতে নগরবাসীকে নিজ নিজ বাসা-বাড়িতে অবস্থান করার জন্য আহ্বান জানান চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আজম নাছির উদ্দিন।বুধবার এক বিবৃতিতে তিনি এ আহ্বান জানান। মেয়র নাছির বলেন,নভেল করোনাভাইরাসের ইনকিউবিশন পিরিয়ড বা রোগ সঞ্চার থেকে প্রথম লক্ষণ দেখা দেওয়ার সময় কমপক্ষে ১৪ দিন । এ কারণে আগামী দু’সপ্তাহ আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপুর্ণ।কারণ এর মধ্যে যদি কারও সংক্রমণ হয়ে থাকে তাহলে তার লক্ষণ প্রকাশ পেতে আরও কয়েক দিন লাগবে। কারণে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় সরকার সাধারণ ছুটির মেয়াদ বাড়িয়েছে। তাই এ গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নগরবাসীকে নিজ নিজ বাসা-বাড়িতে অবস্থান করার জন্য তাগিদ দিয়েছেন মেয়র। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার কথা উল্লেখ করে সিটি মেয়র জানান,করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় যার যে দায়িত্ব তা সঠিকভাবে গুরুত্বের সঙ্গে পালন করতে হবে। এক্ষেত্রে কোনো ব্যক্তি বা সংস্থার বিন্দু পরিমাণ অবহেলা-অনিয়ম সহ্য করা হবে না। সরকারের খাদ্য সাহায্য বণ্টনে কোনো ধরনের অনিয়ম যদি পাওয়া যায় সে যেই হোক না তার রক্ষা নেই। মানুষের দুঃসময়ের সুযোগ নিয়ে কেউ যেন অর্থশালী-সম্পাদশালী হয়ে ওঠার অপচেষ্টা না করেন।। সরকারিখাদ্য সহায়তা নিয়ে কোনো রাজনীতি কাম্য নয়। সরকারি এজেন্সির লোকজন এ ব্যাপারে তৎপর রয়েছেন। এতে কোনো ধরনের অনিয়ম পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকার দ্বিধা করবে না। তাই সরকারি খাদ্য সহায়তা যত দ্রুত সম্ভব অভুক্তদের জড়ো করে নয়, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তাদের ঘরে ঘরে পৌঁছাতে কাউন্সিলরদের প্রতি আহ্বান জানাই। মেয়র আরোও বলেন,ওয়ার্ডগুলোতে বিচ্ছিন্নভাবে বিভিন্ন ত্রাণসামগ্রী বিলি হচ্ছে। এতে করে সরকারি খাদ্য সহাযতা কেউ কেউ একাধিকবার পাচ্ছে আবার কেউ কেউ একদমই পাচ্ছে না। এ ধরনের অভিযোগ কারও কাম্য নয়। তাই সরকারি খাদ্য সহায়তা এবং সমাজের বিত্তবান, এনজিও মাধ্যমে প্রাপ্ত ত্রাণ সামগ্রী বিলির ক্ষেত্রে সমন্বিত উদ্যোগ হওয়া বাঞ্ছনীয়। এ অবস্থানয় সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলররা নিজ নিজ এলাকার অসচ্ছল ব্যক্তিদের অগ্রাধিকার তালিকা প্রণয়নপূর্বক তালিকা অনুযায়ী সরকারি খাদ্য সহায়তা কিংবা বিত্তবান এবং এনজিও বা সেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত সব খাদ্যসামগ্রী বিলি করলে কেউ বাদ যাবে না বলে সিটি মেয়র মনে করেন।

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো করোনা থেকে মুক্ত

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো এখনও নিরাপদেই রয়েছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে। কোনো কোনো রোহিঙ্গা শিবিরের একজন ‘করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত’ বলে খবর প্রকাশিত হলেও প্রকৃতপক্ষে সেখানে এ ধরনের কোনো ঘটনার সত্যতা মেলেনি। প্রকৃতপক্ষে সরকারি সূত্রমতে কক্সবাজারে একটি করোনা আক্রান্ত রোগীর কথা ২৪ মার্চ জানা গিয়েছিল, যিনি বর্তমানে ঢাকায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে ওই রোগীর করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় নমুনা পরীক্ষার ফলাফলও নেগেটিভ এসেছে বলে জানা গেছে। ওই রোগী কক্সবাজারের বাসিন্দা হলেও তিনি রোহিঙ্গা নন কিংবা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দাও নন। রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিরাপত্তা নিয়ে নিজের উদ্বেগ জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত ভিডিও কনফারেন্সে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ উদ্বেগ জানান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প নিয়ে আমরা চিন্তিত। রোহিঙ্গা ক্যাম্প যেন ভালোভাবে সংরক্ষিত হয় সেটা দেখতে হবে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যদি কোনোরকম কিছু হয়ে যায়, তাহলে খুবই ক্ষতি হবে।’ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বহিরাগত কারও প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপের নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘ক্যাম্পে বাইরের কারও যাওয়ার দরকার নেই। আমাদের প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী সবাই আছেন, তারা কাজ করছেন। আমাদের যারা আছেন তারাই সেবা দেবেন। বাইরের কেউ যেন সেখানে না যায় সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে।’

চট্টগ্রামে করোনা পরীক্ষায় ৮ জন, ‘সংক্রমণ মুক্ত

চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) বুধবার আরও ৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ৮ জনের কারও মধ্যে করোনার সংক্রমণ পাওয়া যায়নি বলে জানান বিআইটিআইডি। এর মধ্যে করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা বৃদ্ধা এবং হাটহাজারী থেকে আইসোলেশনে পাঠানো দুই নারীও রয়েছেন। এই তিনজনের কারোর মধ্যে করোনার সংক্রমণ পাওয়া যায়নি। এছাড়া নতুন করে আরও ৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য। এর মধ্যে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করা কিশোর ও তার বাবার নমুনাও রয়েছে। সংগৃহীত এই ৮টি নমুনার মধ্যে ওই কিশোরের নমুনা রীক্ষা করে ফেলা হবে বলে জানান বিআইটিআইডির ল্যাবপ্রধান ডা. শাকিল আহমেদ। ডা. শাকিল জানান,আমরা আরও ৮টি পরীক্ষা করেছি। গতকাল হাটহাজারী থেকে যে দুজন নারী বিআইটিআইডিতে এসেছেন এবং দক্ষিণ চট্টগ্রামের যে বৃদ্ধা মারা গেছেন তারাও এই ৮ জনের মধ্যে ছিলেন। এদের তিনজনের কারোর মধ্যে করোনার সংক্রমণ পাওয়া যায়নি।’সবমিলিয়ে গত ৭ দিনে চট্টগ্রামে মোট ৪১ জনের করোনা ভাইরাস পরীক্ষা হলো। যাদের কারোর মধ্যে করোনার সংক্রামন পাওয়া যায়নি বলে জানান বিআইটিআইডি। প্রসঙ্গত,বিআইটিআইডিতে ৫৫ বছর বয়সী এক নারী মৃত্যুবরণ করেন। করোনার উপসর্গ নিয়েই সেখানে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। একই দিন চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা থেকে ১৬ বছরের এক তরুণী বিআইটিআইডিতে আসেন। জ্বর ও সর্দি ছিল তার। এতে তার আরেক আত্মীয়ও একই উপসর্গ নিয়ে ওই হাসপাতালে যান। কয়েকদিন আগে সৌদি আরব থেকে তাদের দুই প্রবাসী আত্মীয় বাড়িতে এসেছেন। যাদের সংস্পর্শে এসেছিলেন ওই দুই নারী। অন্যদিকে জেনারেল হাসপাতালে এক কিশোর মৃত্যুবরণ করে। পিতার সাথে কক্সাবাজার থেকে শ্বাসকষ্ট নিয়ে চিকিৎসা করাতে এসেছিল ওই কিশোর।ওই কিশোরের পিতাকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

চট্টগ্রাম এবার সেনাবাহিনীর অন্য রূপ দেখবে

আজ বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল)থেকেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং হোম কোয়ারেন্টাইনের বিষয়ে কঠোর হবে সেনাসদস্যরা।করোনাভাইরাস ঠেকাতে মাঠে নামা সেনাবাহিনী এবার কঠোর হতে যাচ্ছে চট্টগ্রামেও।চলাফেরায় বিধিনিষেধ টানতে এতোদিন যা ছিল অনুরোধ, এবার সেটিই হতে যাচ্ছে নির্দেশ। সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়নে বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করতে চট্টগ্রামের মাঠে আছে ২৪ পদাতিক ডিভিশনের সদস্যরা।বুধবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের একথা বলেন।সরকারি নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আজ থেকে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেনাবাহিনী আজ থেকে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তার অংশ হিসেবে দেশের সকল স্থানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং হোম কোয়ারেন্টাইনের বিষয়টি কঠোরভাবে নিশ্চিত করবে। সরকার প্রদত্ত নির্দেশাবলী অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ এতে করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে গত ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে এই সময়ে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে বাইরে না বের হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।এছাড়া কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে বিদেশফেরত সবাইকে।৬২ জেলায় এখন পর্যন্ত পাঁচ হাজারের বেশি সেনাসদস্য এখন কাজ করছেন। সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেছেন, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে যত সেনাসদস্য মোতায়েন প্রয়োজন তা করা হবে।

নগরবাসীকে বাড়ীতে অবস্থান করার আহবান মেয়র নাছির

দেশে নোভেল করোনা ভাইরাসের ( কোভিড-১৯) প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে সরকার ঘোষিত ১১ই এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটিতে নগরবাসীকে নিজ নিজ বাসা/বাড়ীতে অবস্থান করার জন্য উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ আ.জ.ম.নাছির উদ্দীন। আজ বুধবার এক বিবৃতিতে তিনি এ আহবান জানান। তিনি বলেন, নভেল করোনাভাইরাসের ইনকিউবিশন পিরিয়ড বা রোগ সঞ্চার থেকে প্রথম লক্ষণ দেখা দেওয়ার সময় কমপক্ষে ১৪দিন । এই কারণে আগামী দু”সপ্তাহ আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপুর্ণ। কারণ এর মধ্যে যদি কেউ সংক্রমণ হয়ে থাকেন তাহলে তার লক্ষণ প্রকাশ পেতে আগামী কয়েক দিন লাগবে। এই কারণে প্রাণঘাতি এই ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় সরকার সাধারণ ছুটির মেয়াদ বাড়িয়েছে। তাই এই গুরুত্বপূর্ণ সময়ে সকল নগরবাসীকে নিজ নিজ বাসা/বাড়ীতে অবস্থান করার জন্য তাগিদ দিয়েছেন সিটি মেয়র। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার কথা উল্লেখ করে সিটি মেয়র বলেন, নোভেল করোনা ভাইরাস এর সংক্রমণ মোকাবিলায় যার যে দায়িত্ব তা সঠিকভাবে গুরুত্বের সাথে পালন করতে হবে। এক্ষেত্রে কোন ব্যক্তি বা সংস্থার বিন্দু পরিমাণ অবহেলা- অনিয়ম সহ্য করা হবে না। সরকারের খাদ্য সাহায্য বন্টনে কোনো ধরণে অনিয়ম যদি পাওয়া যায় সেই যে হোক না তার রক্ষা নেই। তিনি হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, মানুষের দু:সময়ের সুযোগ নিয়ে কেউ যেন অর্থশালী -সম্পাদশালী হয়ে উঠার অপচেষ্ঠা না করেন।। এ প্রসঙ্গে সিটি মেয়র বলেন, সরকারী খাদ্য সহায়তা নিয়ে কোনো রাজনীতি কাম্য নয়। ইতোমধ্যে সরকারী এজেন্সীর লোকজন এ ব্যাপারে তৎপর রয়েছেন। এতে কোনো ধরণের অনিয়ম পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকার দ্বিধাবোধ করবে না। তাই সরকারী খাদ্য সহায়তা যত দ্রুত সম্ভব অভুক্তদের জঁড়ো করে নয়,সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তাদের ঘরে ঘরে পৌঁছাতে কাউন্সিলরদের প্রতি সিটি মেয়র আহবান জানান।। তিনি আরো বলেন,নগরীর ওয়ার্ড সমূহে বিচ্ছিন্ন ভাবে বিভিন্ন ত্রাণ সামগ্রী বিলি বন্টন হচ্ছে। এতে করে সরকারী খাদ্য সহাযতা কেউ কেউ একাধিকবার পাচ্ছে আবার কেউ কেউ একদমই পাচ্ছে না। এই ধরণের অভিযোগ কারও কাম্য নয়। তাই সরকারী খাদ্য সহায়তা এবং সমাজের বিত্তবান,এনজিও মাধ্যমে প্রাপ্ত ত্রাণ সামগ্রী বিলি বন্টনের ক্ষেত্রে সমন্বিত উদ্যোগ হওয়া বাঞ্চনীয় বলে সিটি মেয়র মনে করেন। এমতাবস্থায়, সংশ্লিষ্ঠ ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণ নিজ নিজ এলাকার অসচ্ছল ব্যক্তিদের অগ্রাধিকার তালিকা প্রণয়নপূর্বক তালিকা অনুযায়ী সরকারী খাদ্য সহায়তা কিংবা বিত্তবান এবং এনজিও বা সেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত সকল খাদ্য সমগ্রী বিলি বন্টন করলে কেউ বাদ যাবে না বলে সিটি মেয়র মনে করেন।

লাইভ টিভি

ওয়ার্ড পরিক্রমা

আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিশিষ্ট বিদ্যুৎসাহী সমাজকর্মী, স্কাউট আন্দোলন এর কর্ণধার ও আলোর কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা ও বসুন্ধরা শিশু কিশোর সংগঠন এর উপদেষ্টা আবু তাহের সর্দারের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা, প্রিয় স্যারের প্রতি আবু তাহের সর্দার স্মরণ সভা কমিটির উদ্যোগে এক স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কবি ও সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, বলেন আবু তাহের সর্দার সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকবেন। জন্মিলে মরিতে হবে এটি চিরন্তন সত্য। তবুও মানুষ তাঁর সৎকর্মের মাধ্যমে চিরকাল স্বরণীয় হয়ে থাকতে পারে। সেজন্য যাঁরা কীর্তিমান তাঁরা তাঁদের সেবামুলক কাজের মাধ্যমে মানবসমাজে বেঁচে থাকেন বহু যুগ যুগ ধরে। তিনি বলেন, এ নশ্বর পৃথিবীতে সবই ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। অর্থাৎ, কোনো মানুষই পৃথিবীতে চিরকাল বেঁচে থাকতে পারে না। সেজন্য দেশ ও মানবকল্যাণে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাওয়ার মধ্য দিয়েই আবু তাহের সর্দার অমর হয়ে থাকবেন এ রাষ্ট্র সমাজে। এ জনসমাগম স্মরণ সভা থেকে তা বুঝ যায় তিনি কতবড় ত্যাগী মানুষ ছিলেন। তিনি দীর্ঘ ৬৩ বছর এ রাষ্ট্র সমাজের জন্য শ্রম দিয়েছেন। অসাম্প্রদায়িক চেতনার মুক্ত মনের বিস্ময় প্রতিভা মানুষ ছিলেন আবু তাহের সর্দার। বক্তরা বলেন, মানুষের দুঃখ-দুর্দশাকে লাঘব করতে আবু তাহের সর্দারের প্রচেষ্টা অতুলনীয়; সমাজের আলোক বর্তিকা হয়ে তিনি সমুজ্জ্বল। আবু তাহের সর্দারের কর্মজীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজ বিনির্মানে তরুনদের এগিয়ে আসার শপথ নিতে হবে। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আবুল হাসেম, বখতিয়ার উদ্দীন সহ মরহুমের শুভানুধ্যায়ীরা।

খেলা

তামিম-লিটনের রেকর্ড জুটিতে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে লিটন দাস ও তামিম ইকবালের বিশ্ব রেকর্ড গড়া জুটির ম্যাচে হোয়াইটওয়াশ জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হেরে গেল জিম্বাবুয়ে।এর আগে একমাত্র টেস্টে ইনিংস ও ১০৬ রানের ব্যবধানে হেরে যায় সফরকারী জিম্বাবুয়ে। আগামী ৯ ও ১১ মার্চ মিরপুর শেরেবাংলায় টাইগারদের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে অতিথিরা। হারলেই হোয়াইটওয়াশ। এমন সমীকরণের ম্যাচে টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ করে জিম্বাবুয়ে। সিলেট আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে রীতিমতো তাণ্ডব চালান তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। বিকাল চারটায় বৃষ্টি শুরু হওয়ার আগে ৩৩.২ ওভারে ১৮২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তামিম-লিটন। দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফের যখন খেলা শুরু হয় তখন ম্যাচ নির্ধারণ হয় ৪৩ ওভারে। ব্যাটিংয়ে ঝড় তোলেন লিটন দাস। বৃষ্টির আগে ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেয়া লিটন ছাড়িয়ে যান দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নিজের আগের গড়া ১৫৪ রানের ইনিংসের রেকর্ড ভেঙে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ১৫৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তামিম। দুই দিনের ব্যবধানে তার সেই রেকর্ড ভেঙে দেন লিটন দাস। শুক্রবার ইনিংস শেষ হওয়ার ১৩ বল আগে একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন লিটন। সাজঘরে ফেরার আগে ১৪৩ বলে ১৬টি চার ও ৮টি ছক্কার সাহায্যে ১৭৬ রানের ইনিংস খেলেন লিটন। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের এই ইনিংস খেলার পথে শুধু তামিম ইকবালকেই নয়, কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা, রিকি পন্টিং ও কুমার সাঙ্গাকারার মতো তারকা ব্যাটসম্যানদের ছাড়িয়ে যান লিটন। লিটনের বিদায়ের আগেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৩তম এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৩তম সেঞ্চুরি করেন তামিম ইকবাল। ইনিংসের শুরুতে ওপেন করতে নেমে শেষ বল পর্যন্ত খেলে যান তামিম। আগের ম্যাচে ১৩৬ বলে ১৫৮ রান করা তামিম এদিন খেলেন ১০৯ বলে ৭টি চার ও ৮টি ছক্কায় ১২৮ রানের ইনিংস। লিটন-তামিমের জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪৩ ওভারে ৩ উইকেটে ৩২২ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সিকান্দার রাজার ৬১ আর ওয়েসলি মাধেভার ৪২ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭.৩ ওভারে ২১৮ রানে অলআউট হয়। ১২৩ রানের সহজ জয় পায় বাংলাদেশ।

সর্বশেষ সংবাদ